Wednesday, May 25, 2022

টিকা নেওয়ার ৮ ঘণ্টা পর স্কুল শিক্ষার্থীর মৃত্যু

করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার ৮ ঘণ্টা পর তানজীন আক্তার নামের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে এ ঘটনা ঘটে। সে নরদহি উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী।

টিকা নেওয়ার কিছুক্ষণ পর তার শরীরে জ্বর শুরু হয়, একপর্যায়ে জ্বর তীব্র হয়ে মৃত্যু হয় ওই শিক্ষার্থীর। তবে ভ্যাকসিন নেওয়ার কারণে তার মৃত্যু হয়নি বলে জানান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। তানজীন আক্তার উপজেলার সল্লা ইউনিয়নের ভাওয়াল গ্রামের শামসুর রহমানের মেয়ে।

নিহতের পরিবার ও সহপাঠীরা জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় নরদহী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা টিকা নিতে কালিহাতী যান। সেখানে তানজীন আক্তারও টিকা নেন। টিকা নেওয়ার কিছুক্ষণ পরেই তার জ্বর আসলে সে বাড়ি চলে যায়। বাড়িতে যাওয়ার পর শরীর খারাপের জন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা নাপা ট্যাবলেট খাওয়ানোর পরামর্শ দেন। সে অনুযায়ী তাকে নাপা ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়। পরে সন্ধ্যার দিকে মৃত্যু হয় তানজীনের।

ওই শিক্ষার্থীর বড় ভাই বলেন, টিকা দেওয়ার কিছুক্ষণ পরে তানজীনের জ্বর আসে। স্বাস্থ্যকর্মীদের নির্দেশনা মোতাবেক নাপা ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়।

নরদহি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে তার প্রচণ্ড জ্বর উঠে। এরপর সে বাড়ি চলে যায়।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. উম্মে রুমান সিদ্দিকী বলেন, স্ট্রোকে তার মৃত্যু হতে পারে ভ্যাকসিন নেওয়ার কারণে নয়। ভ্যাকসিন নেওয়ার কারণে মৃত্যু হলে তার খিঁচুনি, শ্বাসকষ্ট ও বমিসহ অন্যান্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতো। কিন্তু তার মাঝে এসব কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে পুরুষ ১৯ জন ও নারী ১১ জন। এ নিয়ে মহামারি শুরুর পর থেকে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২৮ হাজার ৫২৪ জন।

একই সময়ে নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৫২ জন। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮ লাখ ৪৪ হাজার ৮২৮ জনে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় ৩৩ জনের মৃত্যু ও নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল ১১ হাজার ৫৯৬ জন। ওইদিন শনাক্তের হার ছিল ২৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ