Tuesday, June 28, 2022

পাবিপ্রবিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীনবরন অনুষ্ঠিত।

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীনবরন ২২শে মে রোজ রবিবার সকাল ১০:৩০ ঘটিকায় ক্যাম্পাসের স্বাধীনতা চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত অনুষ্ঠানে অধ্যয়নরত ও নবীন শিক্ষার্থী সহ উপস্থিত ছিলেন সকল বিভাগের ডিন,শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হাফিজা খাতুন।

উক্ত নবীনবরন অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম মোস্তফা কামাল খান।অতিথিদের আসনগ্রহনের পর অনুষ্ঠানের সুচনা হয় পবিত্র গ্রন্থ থেকে পাঠের মাধ্যমে, এরপর নবীন শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে বরন করে নেওয়া হয়।সম্মিলিতভাবে জাতীয় সংগীত গাওয়ার পর অতিথিবৃন্দ নবীন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে মুল্যবান বক্তব্য দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন -জীবনে চলার জন্য শুধু নিজের দিকে না তাকিয়ে অন্যের চলার পথকেও পরিস্কার করতে হবে। তোমরা যেমন অন্যের দেখানো পথে এগিয়ে যাবে তেমনি তোমাদের দেখানো পথে অন্যেরাও এগিয়ে যাবে। তোমাদেরকে আলোকিত পথ বেছে নিতে হবে। অন্ধকার থেকে আলোয় যেতে হবে, যাতে পিছনের যাত্রীও সামনে যেতে পারে। তোমরা স্বপ্ন দেখবে। অল্পতেই ভেঙ্গে পরোনা। হোঁচট না খেয়ে বড় হওয়া যায় না। মনের জোর, সততা একাগ্রতা নিয়ে এগিয়ে যাবে। শিক্ষকরা তোমাদের সর্বাত্বক সহযোগিতা করবে। আমাদের নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হলেও এখানকার শিক্ষকরা বিশ্বমানের। আমাদের জ্ঞান বিশ্বের সাথে তুলনীয়। এখন প্রযুক্তির যুগ এটাকে গ্রহণ করে কাজে লাগিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা এগিয়ে যাব।

অনুষ্ঠানের সভাপতি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এস.এম মোস্তফা কামাল খান বলেন-একুশ শতকের বিশ্বের সাথে প্রতিযোগিতার জন্য অন্যতম মাধ্যম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি। প্রযুক্তির বিকাশের জন্য এই বিশ্ববিদ্যালয় নতুন নতুন জ্ঞান তৈরী করছে। গবেষণার নতুন নতুন ক্ষেত্র সৃষ্টি করছে। পাশাপাশি গণতন্ত্র, মুক্ত চিন্তা সর্বোপরি বিশ্ব মানব তৈরী করছি আমরা। চতর্থ শিল্প বিপ্লবের যোগ্য ও সুনাগরিক তৈরী হচ্ছে এখানে। আগামী শতকের বাংলাদেশ গড়ে উঠবে তোমাদের হাত দিয়ে। তারুণ্যের শক্তি দিয়ে দেশ ও জাতির প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে আধুনিক বাংলাদেশ গড়ে তুলবে এখানকার শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন অত্র ক্যাম্পাসের প্রক্টর,ছাত্র উপদেষ্টা দপ্তরের পরিচালক,রেজিস্ট্রার ও বিভিন্ন অনুষদের ডিনবৃন্দ।এছাড়া ক্যাম্পাসে নতুন জীবন এর প্রত্যাশা ও নবীনবরন এর আয়োজন নিয়ে অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন নবীন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

অতিথিবৃন্দের বক্তব্যের শেষে বিরতির পর নবীন শিক্ষার্থীদে উদ্দেশ্য নাচ,গান ও নানা আয়োজন নিয়ে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এর মধ্য দিয়ে দুপুর ২ঃ৩০ মিনিট এ শেষ হয় নবীন বরন অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকল নবীন শিক্ষার্থী ও অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের পদচারণায় পাবিপ্রবির পরিবেশ হয়ে উঠেছিলো উৎসবমুখর। এ মহতী অনুষ্ঠান এর মাধ্যমে নবীন শিক্ষার্থীদের নতুন ক্যাম্পাস লাইফের শুভ সুচনা ঘটলো পাবিপ্রবির ৩০ একরে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ