Friday, September 30, 2022

বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় যবিপ্রবির পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ড. হুমায়ুন ও ড. রোকনুজ্জামান

যবিপ্রবি প্রতিনিধি: বিশ্বসেরা গবেষক তালিকায় স্থান করে নিয়েছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোঃ হুমায়ুন কবির ও ড. মো: রোকনুজ্জামান সহ মোট ২৫ জন শিক্ষক ও তড়িৎ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিভাগের এক শিক্ষার্থী।

সম্প্রতি ২০২২ সালের গবেষণার ওপর বিশ্বসেরা গবেষকদের নাম প্রকাশ করেছে অ্যালপার ডগার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্স। র‍্যাংকিংয়ে বিশ্বের ২১২টি দেশের ১৪ হাজার ১২০ টি প্রতিষ্ঠানের মোট ৭ লাখ ২৯ হাজার গবেষকের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এতে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ২,৭৭১ জন গবেষক স্থান পেয়েছেন।

গবেষক হিসেবে বর্তমান ও ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানতে চাইলে ড. মোঃ হুমায়ুন কবির বলেন, এডি সায়েন্টিফিক ইনডেক্সের প্রকাশিত গবেষক তালিকায় স্থান পেয়ে ভাল লাগছে।গতবারও ছিলাম, এবারও আছি আলহামদুলিল্লাহ্‌। আমি ন্যানোনেটওয়ার্ক নিয়ে কাজ করেছি,ভবিষ্যতে টারগেটেড ড্রাগ ডেলিভারি নিয়ে কাজ করতে চাই। কৃষিতে কীটের উপস্থিতি নির্ণয়ে ন্যানোনেটওয়ার্কের ব্যবহার করা যায়, সেটা নিয়েও কাজ করার পরিকল্পনা আছে। আমার এখন পর্যন্ত জার্নাল, কনফারেন্স, এবং বুকচ্যাপ্টার মিলে মোট ৩৩টি প্রকাশনা আছে।

এডি সায়েন্টিফিক ইনডেক্স ও গবেষণা সম্পর্কে জানতে চাইলে ড. মো: রোকনুজ্জামান বলেন, গবেষক হিসেবে কোনো তালিকায় নাম আসলে কিছুটা ভালো লাগা কাজ করে। গবেষণা হলো পানি পানের পিপাসার মত,যেখানে অধিক ভাললাগা পিপাসা কমিয়ে দিতে পারে।তবে এটা সত্য যে সামান্য ভালো লাগা অনেক সময় কাজ করার উৎসাহ বাড়ায়,তাই কাজ করার উৎসাহ নিয়েই থাকতে চাই।আমার কাজের প্রধান বিষয় মূলত কঠিন পদার্থের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য নির্ণয় করা এবং তাঁর সম্ভাব্য ব্যবহার সম্পর্কে ধারণা দেওয়া।

তিনি আরো বলেন, পেরভসকাইট নামক বিশেষ ধরনের অর্ধপরিবাহী পদার্থ নিয়ে কাজ করছি।ভবিষ্যতে কোয়ান্টাম কম্পিউটিং এ ব্যবহৃত পদার্থ ও টপোলজিক্যাল পদার্থের উপর কাজ করার ইচ্ছা রয়েছে। এপর্যন্ত আমার প্রকাশিত গবেষণা প্রবন্ধের সংখ্যা ২৭ টি। প্রবন্ধ সমূহের সর্বমোট সাইটেশন ৯০০ এর অধিক। সাইটেশন সংখ্যা হল আমার গবেষণা প্রবন্ধ অন্য গবেষকদের প্রবন্ধে কতবার রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে তাঁর সংখ্যা। আলোচিত এডি ইনডেক্সের রাঙ্কিং মূলত এই সাইটেশন সংখ্যার উপর ভিত্তি করে তৈরি।

এছাড়া তালিকায় স্থান পাওয়া যবিপ্রবির গবেষকদের মধ্যে কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৫ জন, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৪ জন, জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের ৩ জন, ফিশারিজ এন্ড মেরিন বায়োসাইন্স বিভাগের ৩ জন, মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের ২ জন, ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইন্জিনিয়ারিং বিভাগের ২ জন, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২ জন, পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২ জন, ফার্মেসি বিভাগের ১ জন, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১ জন এবং নিউট্রিশন এন্ড ফুড টেকনোলজি বিভাগের ১ জন স্থান করে নিয়েছেন। 

উল্লেখ্য যে, গবেষকদের গুগল স্কলারের রিসার্চ প্রোফাইলের বিগত ৫ বছরের গবেষণার এইচ ইনডেক্স, আইটেন ইন্ডেক্স এবং সাইটেশন স্কোরের ভিত্তিতে ১২টি ক্যাটাগরিতে র‍্যাংকিংটি প্রকাশ করেছে এডি সায়েন্টিফিক ইনডেক্সে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ