Wednesday, May 25, 2022

শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে পেছাল বাংলাদেশ

যুক্তরাজ্যভিত্তিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ‘হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স’ এর করা ২০২২ সালের দ্বিতীয় সংস্করণের শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে অবনতি ঘটেছে বাংলাদেশের। মঙ্গলবার বিশ্বের ১৯৯টি দেশের পাসপোর্ট সূচক প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক এই পরামর্শক প্রতিষ্ঠান। সর্বশেষ এই সূচকে শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় বাংলাদেশের সঙ্গে যৌথভাবে ১০৪তম অবস্থানে রয়েছে কসোভো ও লিবিয়া।

যদিও বৈশ্বিক পাসপোর্ট সূচকে গত জানুয়ারিতে কসোভো এবং লিবিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে ১০৩তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ। তার আগে ২০২১ সালের অক্টোবরে এই সূচকে ১০৮তম অবস্থানে থাকলেও জানুয়ারিতে ৫ ধাপ উন্নতি ঘটে বাংলাদেশের পাসপোর্টের। এর ফলে সেই সময় শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে ১০৩তম স্থানে উঠে আসে বাংলাদেশ।

তিন মাসের ব্যবধানে এই সূচকে বাংলাদেশের এক ধাপ অবনতি ঘটেছে। হ্যানলির সূচক অনুযায়ী, বর্তমানে বাংলাদেশের পাসপোর্ট দিয়ে ৪০টি দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করা যায়।

পাসপোর্ট দিয়ে কত দেশে ভিসা ছাড়া বা অন অ্যারাইভাল ভিসায় প্রবেশ করা যায়, ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অথরিটির তথ্যের ভিত্তিতে শক্তিশালী পাসপোর্টের এই সূচক তৈরি করে দ্য হেনলি অ্যান্ড পার্টনার্স। বিশ্বের ১৯৯ দেশের সূচকে কিছু কিছু দেশ যৌথ অবস্থান পাওয়ায় হ্যানলি মোট ১১২টি অবস্থান নির্ধারণ করেছে। গত ১৭ বছর ধরে বিশ্বের কোন দেশের পাসপোর্ট কতটা শক্তিশালী তা নিয়ে প্রত্যেক বছর প্রতিষ্ঠানটি র‍্যাংকিং প্রকাশ করে আসছে। প্রতি তিন মাস অন্তর এই সূচক প্রকাশ করা হয়।

dhakapost

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে মালদ্বীপের পাসপোর্ট সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে মালদ্বীপ। সূচকে ৬০তম স্থানে থাকা মালদ্বীপের নাগরিকরা ৮৮টি দেশে ভিসামুক্ত অথবা অন-অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করতে পারেন।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের প্রতিবেশি ভারত ৮৪তম স্থানে রয়েছে। ভারতের নাগরিকরা বিশ্বের ৬০টি দেশে ভিসা ছাড়া কিংবা অন অ্যারাইভাল ভিসায় ভ্রমণ করতে পারেন। পাকিস্তান ১০৯তম এবং নেপাল ১০৬তম স্থানে রয়েছে। এছাড়া ৯১তম স্থানে আছে ভূটান। দেশটির নাগরিকরা ৫৩টি দেশে ভিসা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারেন। ৯৮তম অবস্থানে থাকা জান্তাশাসিত মিয়ানমারের নাগরিকরা বিশ্বের ৪৬টি দেশে ভিসা ছাড়া যেতে পারবেন।

এবারের এই সূচকে যৌথভাবে শীর্ষে থাকা জাপান এবং সিঙ্গাপুরের পাসপোর্টধারীরা ১৯২টি দেশে ভিসা ছাড়া অথবা অন-অ্যারাইভাল ভিসায় প্রবেশ করতে পারেন। হ্যানলির ২০২২ সালের দ্বিতীয় সংস্করণের পাসপোর্ট সূচকে জার্মানি এবং দক্ষিণ কোরিয়া যৌথভাবে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। এই দুই দেশের পাসপোর্টধারীরা বিশ্বের ১৯০টি দেশে ভিসা ছাড়া ভ্রমণ করতে পারবেন।

তবে এপ্রিলের এই পাসপোর্ট সূচকে একেবারে তলানিতে রয়েছে আফগানিস্তান (১১২তম)। যুদ্ধবিধ্বস্ত এই দেশটির পাসপোর্টধারীরা মাত্র ২৬টি দেশে ভিসা ছাড়া প্রবেশ করতে পারেন।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ