Wednesday, May 25, 2022

রোযার মধ্যে ক্লাস; শিক্ষার্থীদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

রুহুল আমিন, যবিপ্রবি প্রতিনিধি:- আজ ২য় রমজান। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(যবিপ্রবি) তার ক্লাস ও ক্লাস পরীক্ষা যথারীতি চালু রেখেছে। রমজানের মধ্যে ও ক্লাস করা নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গিয়েছে, ছাত্র-ছাত্রীরা যেন তাদের মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। সেহরি করে পর্যাপ্ত পরিমাণ না ঘুমিয়ে ক্লাসে যাওয়ার ফলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ক্লাসে তাদের মনোযোগ ধরে রাখতে পারছেন না। সকালের দিকে মনোযোগ দিতে পারলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে তাদের অমনোযোগীতার গ্রাফ যেন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

হলে থাকা শিক্ষার্থীরা শহরে থাকা শিক্ষার্থীদের তুলনায় মনোযোগ ধরে রাখতে পারছেন। শহরে থাকা শিক্ষার্থীরা সেহরি শেষ করে দুই ঘন্টা ঘুমিয়ে আবার ক্লাসের জন্য দৌড়াচ্ছেন। ফলে তারা মানসিক ভারসাম্য ধরে রাখতে পারছেন না।এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেনেটিক ইন্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী সানজিদা বলেন, সেহরি করে আমরা পর্যাপ্ত ঘুমের সময় পাচ্ছি না। ঘুম থেকে উঠলেও শরীরে বল পাচ্ছি না। যার কারণে ক্লাসে মনোযোগ থাকছে না। এছাড়া সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত একটানা ক্লাস হওয়ার কারণে শেষ ক্লাসে এসে ক্লাস করবো এই মনোবল টুকুও পাচ্ছি না।

এ সময় এনভায়রনমেন্টাল সাইন্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার কবির বলেন,রোযা রেখে একটানা ক্লাস করে আমরা ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছি। এছাড়া তীব্র তাপদাহের কারণে আমাদের শরীরের পানিসাম্যতা ঠিক থাকছে না। আমরা তো করোনার কারণে অনলাইন ক্লাস করতে অভ্যস্ত তাই অনলাইন এ ক্লাস নিলেও ভালো হতো৷ আমরা সিলেবাস শেষ করতে পারতাম।

কেমিক্যাল ইন্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী ইসমাইল হোসেন বলেন, রোযা রেখে আমাদের একটানা ক্লাস করতে অবশ্যই অনেক কষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু ইন্জিনিয়ারিং এর কোন ক্লাস অনলাইন এ করে বোঝা মুশলিক। এছাড়া ঈদের পরে যেহেতু আমাদের পরীক্ষা তাই সিলেবাস শেষ করতে আমাদের ক্লাস করতে হচ্ছে।

এদিকে রাবি, চবির মতো বড় বিশ্ববিদ্যালয় গুলো ক্লাস কবে নাগাদ বন্ধ হবে তা নিশ্চিত করলেও যবিপ্রবি এ বিষয়ে কিছু নিশ্চিত করে নি।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ