Tuesday, May 24, 2022

ঘাস কাটতে এসে প্যান্ডেল ক্লিপ চুরি করতেন তিনি

রেললাইনের পাশে বসে কিছু একটা করছেন এক যুবক। দূর থেকে মনে হবে যেন ঘাস কাটছেন তিনি। তবে ঘাস কাটার কাঁচির বদলে তিনি সঙ্গে নিয়ে এসেছেন হাতুড়ি। আর সেই হাতুড়ি দিয়ে খুলছেন রেললাইনের প্যান্ডেল ক্লিপ। এমন সময় হাতেনাতে ধরা পড়েন ওই যুবক। পরে আটক করে রেলওয়ে থানা পুলিশে সোর্পদ্দ করা হয় তাকে।

শুক্রবার (১ এপ্রিল) সকাল ৯টায় জয়পুরহাটের আক্কেলপুর-বেগুনবাড়ি রেলগেটের উত্তর দিকের ৩০৩ থেকে ৩০৯ কিলোমিটার পর্যন্ত রেললাইনের ২৫টি প্যান্ডেল ক্লিপ চুরির সময় ওই যুবককে আটক করা হয়। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

আটক ওই যুবকের নাম তুফান হোসেন (২২)। তিনি আক্কেলপুর পৌরশহরের ফকিরপাড়া মহল্লার বাসিন্দা।

আক্কেলপুর রেলস্টেশন সূত্রে জানা গেছে, আক্কেলপুর-জামালগঞ্জ রেলস্টেশনের বেগুনবাড়ি রেলগেট এলাকার উত্তর দিকে ৩০৩-৩০৯ কিলোমিটারের মধ্য প্যান্ডেল ক্লিপ চুরি হচ্ছিল। এক সপ্তাহ আগে এক দিনে ১৫০টি প্যান্ডেল ক্লিপ চুরি হয়। প্যান্ডেল ক্লিপ চুরির বিষয়টি ওয়েম্যানদের নজরে দ্রুত আসায় লাইনের ওই স্থানগুলোতে প্যান্ডেল ক্লিপ প্রতিস্থাপন করা হয়। ফলে দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায়।

প্যান্ডেল ক্লিপ চুরি রোধে বেগুনবাড়ি থেকে জামালগঞ্জ পর্যন্ত ১১ জন ওয়েম্যান পালাক্রমে রাত-দিন পাহারা দিচ্ছিলেন। আজ (শুক্রবার) তুফান হোসেন নামে এক যুবক বেগুনবাড়ি রেলগেটের অদূরে রেললাইনের ধারে ঘাস কাটছিলেন। তিনি এদিক-ওদিক তাকানোর পর বস্তার ভেতর থেকে হাতুড়ি বের করে রেললাইনের প্যান্ডেল ক্লিপ খুলে বস্তায় ভরছিলেন।

দায়িত্বে থাকা এক ওয়েম্যান আড়ালে থেকে এ দৃশ্য দেখছিলেন। পরে তিনি তার সহকর্মীদের ঘটনাটি জানান। এরপর তারা সেখানে গিয়ে তুফান হোসেনকে প্যান্ডেল ক্লিপসহ হাতেনাতে ধরেন এবং সান্তাহার রেলওয়ে থানা পুলিশকে খবর দেন। পরে সান্তাহার রেলওয়ে পুলিশ আক্কেলপুর রেলস্টেশনে এসে প্যান্ডেল ক্লিপসহ তুফান হোসেনকে নিয়ে যান।

রেলওয়ের ওয়েম্যান সাদ্দাম হোসেন বলেন, অনেক আগে থেকেই বেগুনবাড়ি রেলগেট থেকে উত্তর দিকের ভাল্কীর সেতু পর্যন্ত রেললাইনের প্যান্ডেল ক্লিপ চুরি হচ্ছিল। এক সপ্তাহ আগে এক দিন সকালে গিয়ে দেখি রেললাইনের ১৫০টি প্যান্ডেল ক্লিপ নেই। দ্রুত সংশ্লষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানায়। পরে রেলাইনে প্যান্ডেল ক্লিপ প্রতিস্থাপন করা হয়। এ কারণে বড় ধরণের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা হয়েছে।

আক্কেলপুর রেলস্টেশনের মাস্টার খাদিজা খাতুন বলেন, প্যান্ডেল ক্লিপ খুলে নেওয়ার কারণে ট্রেন চলাচলের সময় রেললাইন সরে যেতে পারে। এতে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভবনা থাকে। প্যান্ডেল চুরির কারণে ১১ জন ওয়েম্যান পালাক্রমে রাত-দিন রেললাইন পাহারা দিচ্ছিলেন। আজ সকালে রেললাইনের প্যান্ডেল ক্লিপসহ এক তরুণকে আটক করা হয়েছে।

সান্তাহার রেলওয়ে থানার পরির্দশক সাকিউল আযম ঢাকা পোস্টকে বলেন, ওয়েম্যানেরা রেললাইনের প্যান্ডেল ক্লিপসহ একজনকে জিআরপি থানা পুলিশে সোর্পদ্দ করেছে। এ ঘটনায় থানায় একটি চুরির মামলা হয়েছে। ওই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বগুড়ার আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ