Monday, May 23, 2022

নিজ কক্ষে ২ ঘণ্টা তালাবন্দি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক

নম্বর টেম্পারিংয়ের অভিযোগে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রধান ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নজরুল ইসলামকে তালাবন্দি করে রাখার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) বেলা ১১টায় শিক্ষার্থীরা তাকে তার নিজ কক্ষে দুই ঘণ্টা তালাবন্দি বলে রাখেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা জানান, অভ্যন্তরীণ পরীক্ষার নম্বর মূল পরীক্ষা শুরুর আগে প্রকাশ করার নিয়ম থাকলেও একক সিদ্ধান্তে অধ্যাপক নজরুল তা প্রকাশ করেন না। ওই শিক্ষক পরীক্ষার খাতা হারিয়ে ফেলার কারণে তিনবার একটি ইনকোর্স পরীক্ষায় বসতে হয়েছিল বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা।

মনির নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, শুরু থেকে আমাদের ফার্স্ট গার্ল এমনকি পুরো বিভাগে যার রেকর্ড মার্ক তাকেও নম্বর কমিয়ে দেয়া হয়েছে। নজরুল স্যার আমাদের গালমন্দ করে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে বলেন- আমাদের ব্যাচ থেকে শিক্ষক হতে চাইলে তিনি দেখে নেবেন। স্যারের এ কথার প্রভাবই আজকের আমাদের এই ফলাফল।

স্নাতকপর্যায়ে বিভাগটিতে রেকর্ড মার্ক পাওয়া শিক্ষার্থী জারমিনা রহমান প্রধানমন্ত্রীর স্বর্ণপদকের জন্য মনোনীত হয়েছেন। অভিযোগ রয়েছে, সেই শিক্ষার্থীকেও নম্বর টেম্পারিং করে ৩.৪৫ দিয়েছেন প্রফেসর নজরুল ইসলাম।

এ বিষয়ে জারমিনা রহমান বলেন, স্যারদের কোথাও ভুল হতে পারে। আমি পুনরায় মূল্যায়ন করার অনুরোধ জানাই। আমি ভালো পরীক্ষা দিয়েছি। আমার যে ফলাফল এসেছে তা প্রত্যাশিত নয়।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ড. নজরুল ইসলামের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার থেকে কোনো ধরনের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। প্রক্টর ড. উজ্জ্বল কুমার প্রধান বলেন, শিক্ষার্থীদের অভিযোগ শুনেছি। একদিনের সময় চেয়েছি আমরা। উপাচার্য স্যারকে আমরা জানাব; তিনি বুধবার শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বসে বিষয়টি সমাধান করবেন।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ