Monday, May 23, 2022

কাল থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিযুদ্ধ

২০২১ সালের উচ্চমাধ্যমিক ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের এক মাস না পেরোতেই শুরু হচ্ছে উচ্চশিক্ষার ভর্তিযুদ্ধ। ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে প্রথম সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আগামীকাল শুক্রবার (১১ মার্চ) শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ভর্তি পরীক্ষা।

৪ অনুষদে আলাদাভাবে অনুষ্ঠিত হওয়া এই ভর্তি পরীক্ষা শেষ হবে আগামী শনিবার (১২ মার্চ)। তাছাড়া চলতি মাসে বিশ্ববিদ্যালয়টির অধিভুক্ত মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজির (এমআইএসটি) ভর্তি পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১৮ মার্চ এটি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

তথ্য মতে, উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশের পর সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ সভায় বসে সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের সম্ভাব্য দিনক্ষণ নির্ধারণ করে। তবে এবার ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের আগে সভায় বসেনি বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ। তাছাড়া আগামীতে কবে বসা হবে সেটিও নিশ্চিত নন সংশ্লিষ্টরা। এজন্য করোনার কারণে যথাসময়ে উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশ না করা এবং গত (২০২০-২০২১) শিক্ষাবর্ষে অনেক বিশ্ববিদ্যালয় এখনও ভর্তি কার্যক্রম শেষ না করার কারণ হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, একদিকে দেরিতে এবারে উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষা নেওয়া, অন্যদিকে একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কার্যক্রম শেষ না হওয়ায় অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা এখনও বসতে আগ্রহ দেখায়নি। ফলে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সভায় এখনও বসা হয়নি।

প্রসঙ্গত, গত বছর ২০২১ সালে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হতে পারেনি উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষা, সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে অনুষ্ঠিত হওয়া এই পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন ‘বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের’ সভাপতি ও ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (ডুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাবিবুর রহমান দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, সভা নিয়ে এখনও কোন তারিখ নির্দ্দিষ্ট করা হয়নি। যদি তারিখ নির্দ্দিষ্ট করা হয় তখন সব উপাচার্যদের সঙ্গে বসা হবে। কেউ যদি না বসে তাহলে আমি একা বসে কি করবো?

তিনি জানান, এই সভা করা হয় মূলত ভর্তি পরীক্ষার দিনক্ষণ নিয়ে এক বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আরেক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয় করার জন্য। যাতে একইদিনে একের অধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা  না নেওয়া হয়। তবে চাইলে সভা না করেও যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নিয়ে নিতে পারে। সেক্ষেত্রে সময়সূচির সমন্বয়ের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

জানা যায়, গত ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবারের মতো দেশের ২০টি সাধারণ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়। গত বছরের ১৭ অক্টোবর প্রথম ভর্তি পরীক্ষা শুরু পর গত ৬ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম সমাপ্ত ঘোষণা করতে বৈঠক করেছেন উপাচার্যরা। তবে অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে এখনও ভর্তি কার্যক্রম শেষ হয়নি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গুচ্ছের ছাড়া বাকি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ক্লাস ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। তবে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছের অনেক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কার্যক্রম শেষ না করায় পরবর্তী ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের নতুন ভর্তি কমিটিও নির্ধারণ করা হয়নি।

বর্তমানে দেশে অর্ধশত স্বায়ত্তশাসিত ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এরমধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয় ও ৪টি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া বাকিগুলোতে সরাসরি ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি হয়ে থাকে।

গতবার প্রথমবারের মতো এসব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০টিতে সমন্বিতভাবে ভর্তি পরীক্ষার আয়োজন করে। সমন্বয়হীনতাসহ নানান কারণে গুচ্ছের অনেক বিশ্ববিদ্যালয় এখনও ভর্তি কার্যক্রম শেষ করতে পারেনি।

বিইউপির ভর্তি পরীক্ষা শুরু কাল: আগামীকাল শুক্রবার (১১ মার্চ) থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকের ভর্তি পরীক্ষা। প্রথমদিন বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ এবং আর্টস ও সোশ্যাল সায়েন্স অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরের দিন শনিবার সিকিউরিটি অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক অনুষদ এবং সায়েন্স ও টেকনোলজি অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এই ভর্তি পরীক্ষা ঢাকা, চট্টগ্রাম, বগুড়া এবং খুলনার কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। তবে মৌখিক পরীক্ষা হবে ঢাকায় বিইউপির ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে আয়োজনে ইতোমধ্যে সব কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী, শুক্রবার থেকে ঢাকাসহ ৪টি কেন্দ্রে এই ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ