Wednesday, May 25, 2022

জবির আইএমএল-এ জাঁকজমকপূর্ণ ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

গত ০৮ মার্চ ২০২২ (মঙ্গলবার) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের নবীন শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হয়েছে। প্রথম ক্লাস উপলক্ষে প্রতিটি বিভাগেই ওরিয়েন্টেশন ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়। তবে আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট(আইএমএল)-র নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠান ছিল ভিন্ন ধর্মী এবং জাঁকজমকপূর্ণ। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের (আইএমএল) যাত্রা শুরু হয় ২০১৭ সালের ৯ আগস্ট। পরবর্তীতে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষ থেকে ৪০টি আসন নিয়ে বি.এ অনার্স ইন ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ প্রোগ্রাম চালু করা হয়। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে তুলনামূলক নতুন একটি বিভাগ হওয়া সত্ত্বেও প্রথম ব্যাচে শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছিল ৩৯ জন। ২০১৮-১৯ ও ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে যথাক্রমে ৩৫ ও ৪৩ ভর্তি হয় এবং এসময় আই.এম.এল শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করে।

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়ায় শিক্ষার্থী পেতে কিছুটা বেগ পোহাতে হলেও আই.এম.এল এ ঠিকই ৩৯ জন ভর্তি হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। বর্তমানে আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটে নয়জন শিক্ষক রয়েছেন যার মধ্যে দুইজন ছুটিতে আছেন।

উক্ত ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইএমএল-র পরিচালক ও সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার মোন্তাসির হাসান, আইএমএল-র সাবেক পরিচালক ও বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রী হলের বর্তমান আবাসিক শিক্ষক অধ্যাপক ড. প্রতিভা রানী কর্মকার, সহযোগী অধ্যাপক দেবাশীষ বিশ্বাস, প্রভাষক বেনজীর এলাহি মুন্নী, সুরাইয়া আক্তার সুমনা, ফিরোজা খাতুন (প্রভাষক, ফ্রেঞ্চ ল্যাংগুয়েজ) এবং নবীন শিক্ষার্থীসহ অন্য তিন বর্ষের শিক্ষার্থীবৃন্দ। আইএমএল-র পরিচালক খন্দকার মোন্তাসির হাসান নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, “আই.এম.এল. এমন একটি জায়গা যেখানে শিক্ষার গুণগত মানের উপর বেশি জোর দেওয়া হয়। আমরা শিক্ষকবৃন্দ আমাদের সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে পড়িয়ে যাচ্ছি শুধুমাত্র তোমাদের জন্য। তোমাদের কাছে আমাদের একটাই প্রত্যাশা তোমরা কথায় নয়, এখান থেকে যা অর্জন করবে সেটা দিয়ে নিজেকে ফুটিয়ে তুলবে। তোমরা নিজেদেরকে আলাদাভাবে তুলে ধরবে যেন তা পক্ষান্তরে আই.এম.এল. কেই তুলে ধরা হয়।মনে রাখবে, তোমরা যা আই.এম.এলও তাই। এমন কোন কাজ করবে না যাতে কারও বা ইন্সটিটিউটের মান ক্ষুন্ন হয়।” এছাড়াও তিনি সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. প্রতিভা রানী কর্মকার বলেন, “সব সময় নিজেকে অন্যদের তুলনায় আলাদা করে ফুটিয়ে তুলবে। নিজেদের ব্যবহার, আচরণ, কথা বার্তায় মার্জিত থাকবে। সিনিয়র এবং শিক্ষকমন্ডলীদের সম্মান রক্ষা করে চলবে। আমরা প্রত্যাশা করি আই.এম.এল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে সর্বশেষে সৃষ্টি হয়েও সর্বপ্রথমে অবস্থান করে নিবে।” এছাড়াও অনুষ্ঠানে অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দরা নবীনদের উদ্দেশ্য স্বাগত বক্তব্য রাখেন। সিনিয়র শিক্ষার্থীদের মাঝ থেকেও অনেকে বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যের শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক দেবাশীষ বিশ্বাস যেখানে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ