Wednesday, May 25, 2022

ব্রাজিল আর্জেন্টিনার সেই ম্যাচ হবে বিশ্বকাপ ফাইনালের স্টেডিয়ামে!

ব্রাজিলের মাটিতে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচটা বাতিল হওয়ার পর থেকেই শুরু হয়েছিল জল্পনা-কল্পনা, কী আছে এই ম্যাচের ভাগ্যে, এই নিয়ে। গেল সপ্তাহে অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ফিফা জানায়, সেই ম্যাচটা মাঠে গড়াবে আবারও। তবে তখন এই ম্যাচের ভেন্যু জানা যায়নি। এবার আর্জেন্টাইন সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, সেই ম্যাচটা মাঠে গড়াবে বিশ্বকাপ ফাইনালের স্টেডিয়াম আল লুসাইলে। সেখানেই বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে মুখোমুখি হবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। 

বিশ্বকাপের জন্য বেশ কিছু স্টেডিয়াম নতুন করে তৈরি করেছে কাতার। তার একটি লুসাইল স্টেডিয়াম, সে মাঠে ম্যাচ গড়ায়নি এখনো। বিশ্বকাপের স্টেডিয়ামগুলোর মধ্যে এই এক স্টেডিয়ামই আছে, যেখানে এখনো কোনো খেলা অনুষ্ঠিত হয়নি। আয়োজকরা একটা বড় ম্যাচ দিয়ে এই স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করতে চাচ্ছেন, আর তাই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সেই ম্যাচটাকেই পাখির চোখ করতে চাইছেন তারা, জানাচ্ছে আর্জেন্টাইন সংবাদ মাধ্যম ওলে।

ফিফার সেই ঘোষণা নিয়ে সন্তুষ্ট নয় আর্জেন্টিনা। ক্লদিও তাপিয়া জানিয়েছেন, চারজন খেলোয়াড়ের নিষেধাজ্ঞা ও জরিমানার বিরুদ্ধে আপিল করবেন তিনি। তবে ম্যাচের ভেন্যু বদলে যাওয়া নিয়ে কোনো পক্ষই কোনো উচ্চবাচ্য করেনি। নতুন ভেন্যু নিয়ে আলোচনা লাতিন সংবাদ মাধ্যমের বাতাস ভারি করছে তাতে।

আপাতত দুটো ভেন্যু আছে আলোচনায়। একটা ইংল্যান্ডের ঐতিহ্যবাহী ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম। আরেকটা কাতারের বিশ্বকাপ ফাইনালের স্টেডিয়াম লুসাইল। ৮০০০০ দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন এই স্টেডিয়ামেই আগামী ১৮ ডিসেম্বর বিশ্বকাপ উঁচিয়ে ধরবে কোনো এক দল।

কাতারি আয়োজকরা বিশ্বকাপ ফাইনালের এই স্টেডিয়ামকে বড় কোনো উপলক্ষ দিয়ে উদ্বোধনের আশা করছেন। শুরুতে কথা হচ্ছিল কাতারের আমির কাপ দিয়ে এর উদ্বোধনের। তবে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা ম্যাচ আয়োজনের সুযোগটা চলে আসায় সে ভাবনাটা অনেকটাই মিলিয়ে গেছে। কারণ শুধু কাতারি লোকজন নয়, পুরো বিশ্বের কাছেই তো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার লড়াই মানে বিশেষ কিছু!

ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা, দুই দলই অবশ্য বিশ্বকাপ যাত্রা নিশ্চিত করে ফেলেছে। ১৫  ম্যাচ থেকে ব্রাজিলের সংগ্রহ ৩৯ পয়েন্ট। ১২টি জয়ের সঙ্গে নেইমাররা ড্র করেছেন তিনটি ম্যাচে। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের মতো আর্জেন্টিনাও বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করে ফেলেছে। ব্রাজিলের সমান ১৫ ম্যাচ থেকে আর্জেন্টিনার অর্জন ৩৫ ম্যাচ। ১০ জয়ের সঙ্গে লিওনেল মেসিরা ড্র করেছেন ৫ ম্যাচে।

দুই দলের বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের সেই ম্যাচটা কার্যত নিয়ম রক্ষার হয়ে গেছে। তবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা যখন মুখোমুখি হয়, সে ম্যাচটা নেহায়েত ‘নিয়ম রক্ষার’ আর থাকে কী করে?

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Leave a Reply

সর্বশেষ